বুধবার , ১৫ মে ২০২৪ | ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. ক্যারিয়ার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. তরুণ উদ্যোক্তা
  7. ধর্ম
  8. নারী ও শিশু
  9. প্রবাস সংবাদ
  10. প্রযুক্তি
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. বহি বিশ্ব
  13. বাংলাদেশ
  14. বিনোদন
  15. মতামত

জাককানইবি শিক্ষক শুভ্রকে বরখাস্তের আদেশ বহাল

প্রতিবেদক
bdnewstimes
মে ১৫, ২০২৪ ৯:৪১ অপরাহ্ণ


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: যৌন নিপীড়নের অভিযোগে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাককানইবি) মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রেজুয়ান আহমেদ শুভ্রকে সাময়িক বরখাস্ত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের নেওয়া সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছিলেন হাইকোর্ট। সেই আদেশ এবার আট সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত। এর ফলে রেজুয়ান আহমেদ শুভ্রকে সাময়িক বরখাস্ত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের দেওয়া সিদ্ধান্ত বহাল থাকল।

হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে নজরুল বিশ্বাবিদ্যালয়ের পক্ষে দায়ের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বুধবার (১৫ মে) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের চেম্বার জজ আদালত এ আদেশ দেন।

আদালতে কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী তাপস কান্তি বল। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী জর্জ চৌধুরী। রিটকারীর পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী শাহ মঞ্জুরুল হক।

আইনজীবী তাপস কান্তি বল বলেন, গত ১৪ মার্চ জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৪তম বিশেষ সিন্ডিকেট সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের এক ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের দায়ে দুই শিক্ষককে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত হয়। তাদের মধ্যে মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাজন সাহার বিরুদ্ধে উত্থাপিত যৌন নিপীড়নের অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হয়। সহযোগী অধ্যাপক রেজুয়ান আহমেদ শুভ্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল অভিযুক্ত সাজন সাহাকে রক্ষা করার চেষ্টা করা, অভিযোগ ধামাচাপা দেওয়া চেষ্টা ও তার স্ত্রীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের যুক্ত করা। এসব অভিযোগে তদন্তে স্বার্থে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। তাকে কেন চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হবে না, সে জন্য কারণ দর্শানোর নোটিশও দেওয়া হয়।

সিন্ডিকেটের নেওয়া ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গত ১৯ মার্চ রেজুয়ান আহমেদ শুভ্র হাইকোর্টে রিট করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে গত ২১ মার্চ রেজুয়ান আহমেদ শুভ্রর ক্ষেত্রে কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের নেওয়া সিদ্ধান্ত তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছিলেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিদ্ধান্ত কেন আইনি কর্তৃত্ব বহির্ভূত ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন আদালত।

গত ২১ মার্চ বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই আদেশ দেন। পরে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে গত ২৯ এপ্রিল আপিল বিভাগে আবেদন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

আইনজীবী তাপস কান্তি বল বলেন, আজ (বুধবার) হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধ করা আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের চেম্বার জজ আদালত হাইকোর্টের আদেশ আট সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন। এর ফলে রেজুয়ান আহমেদ শুভ্রকে সাময়িক বরখাস্ত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের নেওয়া সিদ্ধান্ত বহাল থাকছে।

এর আগে ময়মনসিংহের ত্রিশালে অবস্থিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে নিজ বিভাগের দুই শিক্ষক দ্বারা শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতনের শিকার হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর বিচার চেয়ে চলতি বছরের ৩ মার্চ আবেদন করেন মানবসম্পদ ব্যাবস্থাপনা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের এক নারী শিক্ষার্থী।

এ ঘটনায় যৌন হয়রানির বিচারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শুরু করেন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে দেন উপাচার্য। তবে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের অব্যাহত থাকায় অভিযোগটি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধ কমিটিতে পাঠানো হয়।

পরে ওই কমিটি অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে এ বিষয়ে নোটিশ পাঠান। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দুই শিক্ষকের লিখিত জবাব শুনলেও সেটি কমিটির কাছে সন্তোষজনক মনে হয়নি। ফলে দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধ কমিটি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৪ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৪তম বিশেষ সিন্ডিকেট সভা দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়।

সারাবাংলা/কেআইএফ/টিআর





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা