শনিবার , ৫ আগস্ট ২০২৩ | ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. ক্যারিয়ার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. তরুণ উদ্যোক্তা
  7. ধর্ম
  8. নারী ও শিশু
  9. প্রবাস সংবাদ
  10. প্রযুক্তি
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. বহি বিশ্ব
  13. বাংলাদেশ
  14. বিনোদন
  15. মতামত

জাতীয় পার্টি কোন দিকে যাবে, সিদ্ধান্ত আগামী মাসে

প্রতিবেদক
bdnewstimes
আগস্ট ৫, ২০২৩ ১১:৫৩ অপরাহ্ণ


আজমল হক হেলাল, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে চলতি মাসে রাজপথে বিক্ষোভ সমাবেশ করার পরিকল্পনা করেছে জাতীয় পার্টি। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ কর্মসূচিসহ পদযাত্রা করার চিন্তাভাবনা করছে দলটি। তবে তাদের কর্মসূচির মূল লক্ষ্য হচ্ছে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন।

এদিকে জাতীয় পার্টির সূত্র জানিয়েছে, আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, নাকি বিএনপির সঙ্গে জোটে নির্বাচন করবে সে ব্যাপারে আগামী মাসে (সেপ্টেম্বরে) প্রেসিডিয়াম বৈঠকে সিদ্ধান্ত হবে। তবে দলের চেয়ারম্যান জিএম কাদের বিএনপির দিকে ঝুঁকে গেছেন। তিনি স্পষ্টভাবে দলের ফোরাম বৈঠকে বলেছেন, আমরা তত্ত্বাবধায়ক সরকার চাই না। তবে নির্বাচন সুষ্ঠু হোক তা চাই। এক্ষেত্রে আন্দোলনরত দলগুলোর সঙ্গে একমত আছি। কারণ তারা সুষ্ঠু অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য আন্দোলন করছে।

তিনি দলের রাজনৈতিক ক্ষতি সম্পর্কে ব্যাখা দিয়ে বলেছেন, জাতীয় পার্টিকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত করেছে আওয়ামী লীগ। বিএনপি ক্ষতি করেছে অল্প। সবকিছু মাথায় নিয়ে জাতীয় পার্টিকে সামনের দিকে পথ চলতে হবে।’

সূত্রটি জানায়, শনিবার (৫ আগস্ট) জাপার প্রেসিডিয়াম বৈঠকে এসব বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বৈঠকে ৩৯ জন প্রেসিডিয়াম সদস্যের মধ্যে বৈঠকের ৩৭ জন উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক সূত্র জানিয়েছে, আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টি একা নির্বাচন করবে নাকি জোটে নির্বাচন করবে- সে ব্যাপারে প্রায় দেড় ঘণ্টা আলোচনা করেন জাপা নেতারা। দলের প্রেসিডিয়াম সদস্যরাও এ সময় জাপা চেয়ারম্যানের কাছে তাদের মতামত তুলে ধরেন।

দলের মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু তার বক্তব্যে জাপার সাংগঠনিক অবস্থা তুলে ধরে বলেন, ‘এককভাবে নির্বাচন করার শক্তি জাতীয় পার্টির নেই। জাতীয় পার্টির মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দল অব্যাহত। বেগম রওশন এরশাদ আলাদাভাবে চলছেন। সে ক্ষেত্রে জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক অবস্থা নাজুক। এ অবস্থায় জাতীয় পার্টির রাজনীতি টিকিয়ে রাখতে হলে এমপি হতে হবে। সে জন্য যে কোনো জোটে গিয়ে নির্বাচনে অংশ নিতে হবে।’

মহাসচিবের এই বক্তব্যের সঙ্গে উপস্থিত সকলে একমত পোষণ করেছেন। তবে কোন দলের সঙ্গে নির্বাচনি জোট করবে, কয়টি আসন চাইবে সে বিষয় নিয়ে দরকষাকষির সময় এখনও হয়নি। সে জন্য আগামী মাসে অর্থাৎ সেপ্টেম্বর মাসে প্রেসিডিয়ামের বৈঠকে চূড়ান্ত হবে বলে সূত্র জানিয়েছে।

এ সব বিষয় নিয়ে জাপার একজন প্রেসিডিয়াম সদস্য সারাবাংলাকে জানান, দলের অভ্যন্তরে ঘোলাটে অবস্থা বিরাজ করছে।

আজকের বৈঠক সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আজকের বৈঠকে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এমনকি রেজ্যুলেশনও লেখা হয়নি। তবে সরকারবিরোধী আন্দোলনের জন্য কৌশল করে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির দোহাই দিয়ে রাজপথে নামবে জাতীয় পার্টি। পদযাত্রা কিংবা বিক্ষোভ সমাবেশ অথবা মানববন্ধনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। এই কর্মসূচি কখন করবে, সে বিষয় কো-চেয়ারম্যানরা দলের চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠক করে ঠিক করবেন।’

সারাবাংলা/এএইচএইচ/একে





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা