সোমবার , ২৮ আগস্ট ২০২৩ | ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. ক্যারিয়ার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. তরুণ উদ্যোক্তা
  7. ধর্ম
  8. নারী ও শিশু
  9. প্রবাস সংবাদ
  10. প্রযুক্তি
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. বহি বিশ্ব
  13. বাংলাদেশ
  14. বিনোদন
  15. মতামত

ভারতের সহায়তায় চট্টগ্রামে হচ্ছে ‘নলেজ পার্ক’

প্রতিবেদক
bdnewstimes
আগস্ট ২৮, ২০২৩ ১১:০০ পূর্বাহ্ণ


সারাবাংলা ডেস্ক

চট্টগ্রাম ব্যুরো: বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের অধীন চট্টগ্রামে ‘নলেজ পার্কের’ ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন হয়েছে। ভারত সরকারের আর্থিক সহায়তায় প্রায় ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে দেশের ১২ জেলায় ‘আইটি পার্ক স্থাপন প্রকল্পের’ অংশ এ নলেজ পার্ক।

রোববার (২৭ আগস্ট) সকালে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাই কমিশনার প্রণয় ভার্মা এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক যৌথভাবে এই পার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। পরে জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় ভারতের হাই কমিশনার প্রণয় ভার্মা বলেন, ‘বাণিজ্য ও পরিবহন সংযোগ এবং শক্তি সংযোগের বাইরে গিয়ে ডিজিটাল সংযোগ ভারত-বাংলাদেশ অংশীদারিত্বের একটি দ্রুত উদীয়মান মাত্রা। আইসিটি সেক্টর ভারত-বাংলাদেশের অর্থনৈতিক ও প্রযুক্তিগত অংশীদারিত্বকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাবে। আইটি পার্ক স্থাপন প্রকল্প ২০৪১ সালের মধ্যে ডিজিটাল থেকে স্মার্ট বাংলাদেশে রূপান্তরের লক্ষ্যকেও এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

ভারতের সহায়তায় চট্টগ্রামে হচ্ছে ‘নলেজ পার্ক’

‘আইটি পার্কগুলো প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে হাব ও ইনকিউবেশন সেন্টার তৈরি এবং উদ্যোক্তা বিকাশ ও নতুন-উদীয়মান প্রযুক্তিতে সক্ষমতা তৈরিতে সহায়তা করবে। ইন্টারনেট, মেশিন লার্নিং, রোবোটিক্স, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, বর্ধিত বাস্তবতা এবং অন্যান্য উন্নত এবং অত্যাধুনিক বিষয়ে উন্নততর প্রশিক্ষণের সুযোগ সৃষ্টি হবে।’

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রতিযোগিতা মোকাবেলায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে আইওটি, রোবোটিক্স, সাইবার সিকিউরিটিসহ উচ্চপ্রযুক্তি নিয়ে কাজ করার লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে বর্তমানে চুয়েটে দেশের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক পূর্নাঙ্গ আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন করা হয়েছে। উদ্বোধনের পর মাত্র এক বছরেই সেখানে বেশ কিছু আইটি প্রতিষ্ঠান ও স্টার্টআপকে স্পেস বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। অন্যদিকে সিংগাপুর-ব্যাংকক মার্কেটের ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণের মাধ্যমে নির্মিত বীর মুক্তিযোদ্ধা লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে বাণিজ্যিক কার্যক্রম চলছে।’

অনুষ্ঠানে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘প্রতিযোগিতার এই যুগে আমাদের তরুণদের টিকে থাকতে হলে প্রযুক্তি শিক্ষার বিকল্প নাই। সরকার এজন্যই একটি প্রযুক্তি নির্ভর জাতি গড়ে তুলতে কাজ করে চলেছে। এখন থেকে আর চাকুরির পেছনে ছুটতে হবে না, নিজেরাই উদ্যোক্তা হয়ে মানুষকে চাকুরি দেবে।’

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জি এস এম জাফরউল্লাহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য নোমান আল মাহমুদও বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে প্রকল্প বাস্তবায়ন সংস্থা জানায়, চট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁও থানার চর রাঙ্গামাটিয়া এলাকায় সিডিএ’র প্রায় দশ একর জমির উপর নলেজ র্পাক গড়ে তোলা হচ্ছে। ১৭৫ কোটি টাকার এই প্রকল্পের মধ্যে আছে, স্টলি স্ট্রাকচারে নির্মিত একটি ৫ তলা বিশিষ্ট মাল্টিটেনেন্ট ভবন। চারদিকে থাকবে সীমানা দেয়াল। গেইট হাউজ এবং অভ্যন্তরীন সড়ক নির্মাণ। অভ্যন্তরীন ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও ওয়াকওয়ে। নলকূপ স্থাপন এবং অভ্যন্তরীন পানি সরবরাহ ব্যবস্থা। ইলেকট্রোমেকানিক্যাল ওর্য়াকস। কর্মাশয়িাল স্পেস, স্টার্টআপ ফ্লোর, প্লাগ এন্ড প্লে ফ্যাসিলিটিজ এবং বিশেষায়িত ল্যাব।

এখানে প্রতি বছর ৩ হাজার শিক্ষার্থী প্রশিক্ষণ নিতে পারবে। কর্মসংস্থান হবে এক হাজারের। ২০১৭ সালের ২৫ এপ্রিলে অনুমোদন হওয়া এই প্রকল্পের মেয়াদ হবে ২০২৪ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত।

সারাবাংলা/আরডি/এনইউ





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা