সোমবার , ২০ মার্চ ২০২৩ | ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. ক্যারিয়ার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. তরুণ উদ্যোক্তা
  7. ধর্ম
  8. নারী ও শিশু
  9. প্রবাস সংবাদ
  10. প্রযুক্তি
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. বহি বিশ্ব
  13. বাংলাদেশ
  14. বিনোদন
  15. মতামত

রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রন করুন : বাংলাদেশ ন্যাপ

প্রতিবেদক
bdnewstimes
মার্চ ২০, ২০২৩ ১:৩৬ অপরাহ্ণ
রমজানের পবিত্রতা রক্ষায় দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রন করুন : বাংলাদেশ ন্যাপ

আসন্ন মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের পাগলা ঘোড়ার লাগাম নিয়ন্ত্রন করতে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য সরকারের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ।

সোমবার (২০ মার্চ) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে পার্টির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া এ আহ্বান জানান।

তারা বলেন, জীবনের সর্বস্তরে পরিমিতিবোধ, ধৈর্য ও সংযম প্রদর্শনের মাধ্যমে রমজান মাসের পবিত্রতা রক্ষা করা সকলের দায়িত্ব। পবিত্র রমজানের শিক্ষায় উদ্বুদ্ধ হয়ে যাবতীয় ভোগবিলাস, হিংসা-বিদ্বেষ, উচ্ছৃঙ্খলতা ও সংঘাত পরিহার করে শান্তি প্রতিষ্ঠায় পরস্পরকে সহযোগিতা করতে হবে। জীবনের সর্বস্তরে পরিমিতি বোধ, ধৈর্য ও সংযম প্রদর্শনের মাধ্যমে রমজান মাসের পবিত্রতা রক্ষা করা প্রত্যেক মুসলামানের দায়িত্ব।

নেতৃদ্বয় বলেন, যেখানে রমজান মাস উপলক্ষে বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্য মানুষের হাতের নাগালে রাখা হয়, সেখানে বাংলাদেশের মত বৃহৎ মুসলিম দেশে রমজানকে কেন্দ্র করে কয়েক মাস পূর্বেই ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে দ্রব্যমূল্যের ম্যূ বৃদ্ধি করে দেয়। দু:খজনক হলেও সত্য সরকার এবিষয়ে কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহন কনা।

বিবৃতিতে তারা বলেন, মাহে রমজানকে সামনে রেখে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় গ্যাস-পানির তীব্র সংকট চলছে। সর্বত্র অশ্লীলতা বেহায়পনার সয়লাব। মাদকের ছড়াছড়ি, ঘুষ, দুর্নীতি চরম আকার ধারণ করেছে। মানুষের নিরাপত্তা ও নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। সুদ, ঘুষ ও দুর্নীতির ভয়াবহ সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় ব্যাি তে পরিনত হয়েছে।

নেতৃদ্বয় বলেন, রমজান মাসকে সামনে রেখে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের মূল্যবৃদ্ধিতে জনজীবন চরম দুর্বিষহ করে তুলেছে। এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী রমজানকে সামনে রেখে একদিকে ইবাদত বন্দেগি করে অপরদিকে জিনিসপত্রের মূল্য বৃদ্ধি করে অতিরিক্ত মুনাফা আদায় করে। এমন ইবাদত আল্লাহর কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। তাই মূল্য বৃদ্ধি ও খাদ্যে ভেজাল বন্ধ করতে হবে। মাহে রমজানের সম্মানে সব ধরনের গর্হিত কাজ থেকে বিরত থাকতে ও রাখতে সরকারকে কার্যকরী উদ্যোগ নিতে হবে।

তারা বলেন, যদিও এই মাসের মূল তাৎপর্য হচ্ছে বিলাসিতা পরিহার করে নিজের ভোগ বা চাহিদাকে নিয়ন্ত্রণ করা। তারপরও এ মাসেই ভোগ্যপণ্যের বাজার অস্থির হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে ভোজ্যতেল, ছোলা, ডাল, মটর, পেঁয়াজ, মসলা, চিনি ও খেজুরের চাহিদা বাড়ে দ্বিগুণের বেশি। মানুষের অতিরিক্ত চাহিদার সুযোগে নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে ব্যবসায়ীদের একটি শ্রেণি যে যার মতো নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধি করতে থাকে।

নেতৃদ্বয় বাজার মনিটরিং করে সেই সব অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান একই সাথে ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে বলেন, রমজান মাসে পারস্পরিক সহোযোগিতাপূর্ণ মনোভাব পোষণ করে ব্যবসা করুন। অন্তত রমজান মাসকে ব্যবসার উপলক্ষ না বানাই।

সর্বশেষ - খেলাধুলা