বৃহস্পতিবার , ১৩ জানুয়ারি ২০২২ | ১০ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. তরুণ উদ্যোক্তা
  8. ধর্ম
  9. নারী ও শিশু
  10. প্রবাস সংবাদ
  11. প্রযুক্তি
  12. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  13. বহি বিশ্ব
  14. বাংলাদেশ
  15. বিনোদন

রাষ্ট্রপতির সংলাপ জনগণের সঙ্গে প্রতারণার শামিল: বাম জোট

প্রতিবেদক
bdnewstimes
জানুয়ারি ১৩, ২০২২ ১:৫১ অপরাহ্ণ


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: অবাদ নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠন, বর্তসমান সরকারের পদত্যাগ ও নির্বাচনকালীন তদারকি সরকার গঠনের দাবিতে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের কাছে খোলা চিঠি দিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। একইসঙ্গে ইসি গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির চলমান সংলাপকে জনগণের সঙ্গে প্রতারণার শামিল বলেও উল্লেখ করেছেন জোট নেতারা।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) রাষ্ট্রপতির কাছে জোটের পক্ষে খোলা চিঠি দেওয়ার প্রক্কালে পল্টন মোড়ে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে জোট নেতারা এসব কথা বলেন। সমাবেশ শেষে জোটের সমন্বয়ক সাইফেুল হকের নেতৃত্বে সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুল্লা আল কাফী রতন, মোশরেফা মিশু প্রমুখ বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির কাছে খোলা চিঠি দিতে যান।

সমাবেশে বাম জোটের নেতারা বলেন, বিদ্যমান ব্যবস্থায় নিরপেক্ষ ব্যক্তিদের নিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠিত হলেও নির্বাচনকালীন তদারকি সরকারের কোনো বিকল্প নেই। আর শেষ পর্যন্ত সরকারের পছন্দের ব্যক্তিদের নিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠিত হলে দেশে নির্বাচন পরিস্থিতি ও শাসনতান্ত্রিক ব্যবস্থার মারাত্মক সংকটকে গভীর থেকে আরও গভীরতর করবে। আর ইসি গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতি যে সংলাপ করছেন তা জনগণের সঙ্গে প্রতারণার শামিল বলেও উল্লেখ করেন তারা।

ওই খোলা চিঠিতে বলা হয়, গত দুটি জাতীয় নির্বাচনের মতো আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনও যদি ব্যর্থ হয় তা হলে দেশের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা বিপর্যস্থ হবে। অনিশ্চিত অন্ধকারে পতিত হবে দেশ। সরকারি দল আপনার ওপর ভর দিয়ে বৈতরণী পার হতে চায়। এতে করে বিরাজমান সংকটের সমাধান হবে না।

চিঠিতে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি বর্ণনা দিয়ে বলা হয়, সমগ্র নির্বাচন চরম হাস্যকর, প্রতারণাপূর্ণ আর তামাশায় পর্যবসিত হয়েছে। গোটা নির্বাচনে চলছে টাকার খেলা, পেশী শক্তি, ব্যবসা আর চর দখলরে মত বিষয়ে পরিণত হয়েছে। রাজনীতিতে আস্থা, বিশ্বাস ও সহনশীলতার নূন্যতম গণতান্ত্রিক সংস্কৃতির পরিবর্তে সরকারি দলের পক্ষে পছন্দের দল ও প্রার্থী বাছাই এবং পরির্বতের সুযোগ রুদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তাই দেশবাসী আশাকরছে এসব গভীর সংকট ও রাজনৈতিক দুর্যোগে রাষ্টের প্রধান অভিভাবক হিসেবে জনগণের পক্ষে আপনি কথা বলবেন। সরকারকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিবেন।

ওই খোলা চিঠিতে আরও বলা হয়, যদিও নির্বাচন কেন্দ্রীক এসব বিষয় নিয়ে কথা বলতে দেশের ৫৩ জন বিশিষ্ট নাগরিক চেষ্টা করেও আপনার সাক্ষাৎ পায়নি। এসব বিষয় নিয়ে কথা বলে আপনাকে বিব্রত করতে চাই না। আশাকরি আপনি অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন, বর্তমান সরকারের পদত্যাগ ও নির্বাচনকালীন তদারকি সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করবেন।

সারাবাংলা/এএইচএইচ/এনএস





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা