বৃহস্পতিবার , ২৮ এপ্রিল ২০২২ | ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. ক্যারিয়ার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. তরুণ উদ্যোক্তা
  7. ধর্ম
  8. নারী ও শিশু
  9. প্রবাস সংবাদ
  10. প্রযুক্তি
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. বহি বিশ্ব
  13. বাংলাদেশ
  14. বিনোদন
  15. মতামত

স্ত্রীকে খুন করে ‘আত্মহত্যা’ বলে প্রচার, স্বামীর যাবজ্জীবন

প্রতিবেদক
bdnewstimes
এপ্রিল ২৮, ২০২২ ৭:১৫ পূর্বাহ্ণ


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে খুনের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত। একই রায়ে আদালত তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ের আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন।

বুধবার (২৭ এপ্রিল) চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমান আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেছেন।

দণ্ডিত আব্দুস সাত্তারের বাড়ি কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার মুছাগরা গ্রামে। ২০১৫ সালে তিনি চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী থানার লালখান বাজার ওয়ার্ডের টাংকির পাহাড় এলাকায় ছাদেকের কলোনিতে ভাড়া বাসায় স্ত্রী ও এক মেয়ে নিয়ে বসবাস করতেন।

মামলার নথিপত্র পর্যালোচনায় জানা গেছে— ২০১৫ সালের ৪ আগস্ট রাতে আব্দুস সাত্তারের বাসা থেকে তার স্ত্রী শাহেদা আক্তারের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

আব্দুস সাত্তার পুলিশকে জানায়, তিনি মেয়ে নিয়ে রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাসা থেকে বের হন। ফিরে এসে দেখেন তার স্ত্রী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন। কিন্তু সাত্তারের আচরণে পুলিশের সন্দেহ হলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। প্রতিবেশিরাও তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহের তথ্য পুলিশকে দেয়।

এ সময় সাত্তার স্বীকার করে, ঘটনার দিন সকালে সাংসারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া হয়। সন্ধ্যায় সাত্তার স্ত্রীকে গলা টিপে খুন করে লাশ ঝুলিয়ে রাখে। এরপর মেয়ে নিয়ে বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। ফিরে এসে তার স্ত্রী আত্মহত্যা করেছে বলে কান্না করতে থাকে।

স্থানীয়দের উপস্থিতিতে স্বীকারোক্তির পর পুলিশ সাত্তারকে গ্রেফতার করে। খুলশী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শামসুর রহমান বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

চট্টগ্রাম মহানগর পিপি ফখরুদ্দিন চৌধুরী সারাবাংলাকে জানান, ওই মামলা তদন্ত শেষে পুলিশ ২০১৫ সালের ২৮ অক্টোবর সাত্তারকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। ২০১৬ সালের ৪ আগস্ট আসামির বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন আদালত।

মোট ১৭ জন সাক্ষীর মধ্যে আসামির সাফাই সাক্ষ্যসহ ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত এ রায় দিয়েছেন। গ্রেফতারের পর থেকে সাত্তার জেলহাজতে আছেন।

সারাবাংলা/আরডি/একে





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা