বুধবার , ৪ জানুয়ারি ২০২৩ | ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. ক্যারিয়ার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. তরুণ উদ্যোক্তা
  7. ধর্ম
  8. নারী ও শিশু
  9. প্রবাস সংবাদ
  10. প্রযুক্তি
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. বহি বিশ্ব
  13. বাংলাদেশ
  14. বিনোদন
  15. মতামত

কর্ণফুলীর তীরে উন্মুক্ত কয়লায় অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকি

প্রতিবেদক
bdnewstimes
জানুয়ারি ৪, ২০২৩ ৮:৫১ পূর্বাহ্ণ


স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রামে কর্ণফুলী নদীর তীরে অবৈধভাবে মজুত রাখা ১১ হাজার মেট্রিকটন কয়লা পাওয়া গেছে জেলা প্রশাসনের এক অভিযানে। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, সরাসরি সূর্যের আলোতে দাহ্য কয়লাগুলো উন্মুক্তভাবে রাখায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। সে কারণে এক সপ্তাহের মধ্যে কয়লাগুলো নদীর তীর থেকে অপসারণের নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (৩ জানুয়ারি) বিকেলে নদীর দক্ষিণ তীরে পুরাতন ব্রিজঘাট এলাকায় একটি ডিপোতে কয়লা মজুতের তথ্য পেয়ে অভিযান চালায় জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে সেখানে অভিযান পরিচালনা করেন।

ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত সারাবাংলাকে জানান, কয়লার ডিপোটি সাহারা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন। কয়লা মজুতের জন্য প্রতিষ্ঠানটি পরিবেশ অধিদফতর এবং ফায়ার সার্ভিসের কোনো ছাড়পত্র নেয়নি।

এ সময় ডিপো ইনচার্জ মো. আলামিনকে আটক করে এক বছরের কারাদণ্ড ও পাঁচ লাখ টাকা অর্থদণ্ড দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি মজুত কয়লা এক সপ্তাহের মধ্যে নদীর তীর থেকে অপসারণের নির্দেশ দেওয়া হয়।

উপস্থিত সাংবাদিকদের ম্যাজিস্ট্রেট প্রতীক দত্ত বলেন, ‘কয়লা দাহ্য পদার্থ। শীতকালে শুষ্ক আবহাওয়ায় সরাসরি সূর্যের আলোতে উন্মুক্তভাবে রাখা কয়লাগুলোতে নিজ থেকেই আগুন ধরে যেতে পারে। এছাড়া নদীর তীরে পরিবেশেরও মারাত্মক বিপর্যয় ঘটাচ্ছে উন্মুক্তভাবে রাখা এসব কয়লা।’

সারাবাংলা/আরডি/পিটিএম





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা