সোমবার , ১৬ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. তরুণ উদ্যোক্তা
  8. ধর্ম
  9. নারী ও শিশু
  10. প্রবাস সংবাদ
  11. প্রযুক্তি
  12. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  13. বহি বিশ্ব
  14. বাংলাদেশ
  15. বিনোদন

দুঃখের সৌন্দর্য

প্রতিবেদক
bdnewstimes
জানুয়ারি ১৬, ২০২৩ ৮:০২ অপরাহ্ণ

জাকিয়া জিহান নিপু:

দুঃখের চাইতে তীব্র আকর্ষণীয় আবেগ আর কী আছে! মানুষ দুঃখের প্রেমে পড়ে যায়, মানুষ দুঃখ দুঃখ খেলায় মেতে ওঠে। নেতিবাচকতা থেকে যদিও সবাই পালায়, তবু দুঃখকে অনুভব করার বেলায় সবার একটাই রং। হ্যাঁ, মানুষ নিজেই দুঃখের পায়ের কাছে মাদুর পেতে বসে পড়ে, সেখানেই বসে থাকে দীর্ঘসময়, দুঃখকে অনুভব করে এবং ধীরে ধীরে নিজের মধ্যে ধারণ করে।

দুঃখ মানুষকে শেখায়, দুঃখ মানুষের হাত ধরে তাকে সুখের পথের দিকে নিয়ে যায়। আপনি যখন দুঃখী কারও সঙ্গে গল্প করবেন, তখন একসময় দেখবেন, আপনি নিজেও তার দুঃখটা অনুভব করতে পারছেন; নিজের এমন একটা দুঃখ দূর হয়ে যাচ্ছে, যা সেই দুঃখী মানুষের দুঃখের চাইতে ছোটো। দুঃখের কথা শুনতে শুনতে পৃথিবীর প্রতি ভালোবাসা জন্ম নেয়। আপনার চিন্তাধারা, আপনার জীবনযাপন, আপনার অভিজ্ঞতা, আপনার সব কিছুই দুঃখকে গ্রহণ করে নেয়। দুঃখের যে সৌন্দর্য, তার মধ্যে একবার ডুবে গেলে, সেখান থেকে বেরিয়ে আসা কঠিন। দুঃখের নেশা বড়ো নেশা।

যাদের দুঃখ আপনাকে সহজেই গ্রাস করে রাখে, তাদের এড়িয়ে চলতে শিখুন। হ্যাঁ, আপনি তাদের ওই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করতে পারেন, পাশে থাকতে পারেন বন্ধুর মতন, কিন্তু কোনোভাবেই নিজের সুখকে ওদের দুঃখের কাছে বিসর্জন দিয়ে দেবেন না। দিনশেষে, আপনি যেন আপনিই থেকে যান, সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

কাউকে গর্ত থেকে তুলতে গিয়ে নিজেই যেন গর্তে পড়ে প্রাণ না হারান! নিজেকে বার বারই বোঝান, দরকার হলে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে শব্দ করে করে বলুন, এই পৃথিবীর আপনাকে দরকার। আপনাকে ভালো থাকতে হবে। আপনি ভালো থাকলে আপনার নিজের ও অন্য অনেকেরই বাঁচতে সুখ সুখ লাগবে। দুঃখ ও বিষাদ আপনার বন্ধু নয়। ওদের কাছ থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখুন। দূরে সরিয়ে রাখতে যা যা করা দরকার করুন, যদি সেগুলি কারও কোনও ক্ষতি না করে। এ নিয়ে এক নিজের মন বাদে অন্য কারও কথাই শুনবেন না, কানেই নেবেন না। আপনি দুঃখে দুঃখে মরে গেলেও কারও কিছু এসে যায় না।

নিজেকে স্পষ্টস্বরে জানিয়ে দিন, এরকম বিমর্ষ থেকে যাবার জন্য আপনার জন্ম হয়নি। আপনিও ভালো কিছু করার ও পাবার সমস্ত যোগ্যতা রাখেন। আপনি যা ছিলেন এবং যা আছেন, তার চাইতে অনেক দারুণভাবে বাঁচতে আপনিও পারবেন। নিজেকে হারিয়ে যেতে দেবেন না, নিজেকে নিজেই শক্ত করে ধরে রাখুন। হাত বাড়িয়ে কাউকে না পেলে নিজেই নিজের দিকে সাহায্যের হাতটা বাড়ান। ভাববেন না, আপনার জন্যও জীবন অনেক কিছু রেখে দিয়েছে, যা সে আর কাউকেই দেয়নি, দেবেও না।

সর্বশেষ - খেলাধুলা