মঙ্গলবার , ২৪ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. তরুণ উদ্যোক্তা
  8. ধর্ম
  9. নারী ও শিশু
  10. প্রবাস সংবাদ
  11. প্রযুক্তি
  12. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  13. বহি বিশ্ব
  14. বাংলাদেশ
  15. বিনোদন

কিউই খেতে ভালবাসেন ?এখানে আপনার জন্য রইল ৫টি সহজ এবং সুস্বাদু রেসিপি

প্রতিবেদক
bdnewstimes
জানুয়ারি ২৪, ২০২৩ ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ


কিউই যেমন সুস্বাদু তেমনি স্বাস্থ্যকর। হাই ফাইবারযুক্ত এই ফল আমাদের বিভিন্ন রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করতে , রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়তে এবং ইনফ্লামেশন কম করতে খুব বেশি কার্যকরী। আমাদের রোজকার খাদ্য তালিকায় কিউইকে অন্তর্ভুক্ত করলে ত্বকের ক্ষেত্রে তা ম্যাজিকের মতো কাজ করে। ত্বকের উজ্জ্বলতা এবং সৌন্দর্যককে ফিরিয়ে আনতে দারুণভাবে সাহায্য করে।

এই ফলে প্রচুর পরিমানে ফাইবার থাকার কারণে প্রাকৃতিক উপায়ে কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি দেয়। মিষ্টি অথচ ট্যাঙ্গি ,কম ক্যালোরিযুক্ত এবং ভরপুর ভিটামিন, মিনারেল এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের উৎস এই কিউই ফল আমাদের হার্ট , পাচকতন্ত্রকে ভালো রাখে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে। ব্রিয়ালকফাস্টে স্ন্যাকস হিসাবে কিংবা ডেজার্ট বানিয়েও আপনি খেতে পারেন।

পাঞ্জাবি বাগের ক্লাউডনাইন গ্রুপ অফ হসপিটালের এক্সিকিউটিভ নিউট্রিশনিস্ট রূপালী মাথুর বলেছেন কিউই এর বিভিন্ন ধরণের স্বাস্থ্য সুবিধা রয়েছে। সেগুলিকে এক এক করে এখানে তুলে ধরা হল ।

কিউই র উপকারিতা এবং সুবিধা :ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টযুক্ত কিউই আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে ,

আমাদের শরীরের অভ্যন্তরে ফ্রি র্যাডিকেলগুলিকে দূর করতে এবং মানসিক চাপ কমাতে কিউই খুব বড় ভূমিকা পালন করে থাকে ,কিউইতে রয়েছে প্রচুর পরিমানে মিনারেল যেমন পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন এবং ম্যাগনেসিয়াম যা বিভিন্ন ধরণের শারীরিক সমস্যার হাত থেকে আমাদের রক্ষা করে ,হৃদরোগ এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে কিউই ,এতে প্রচুর পরিমাণে ডায়েটারি ফাইবার থাকার জন্য কিউই ফল এলডিএল বা খারাপ কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে ,কিউইতে রয়েছে বিভিন্ন ধরণের এনজাইম যা শরীরে প্রদাহ বা ইনফ্লেশন কমাতে সাহায্য করে যেমন আর্থ্রাইটিসের কারণে ফোলাভাব।

কিউইর তিনটি সহজ এবং ঝটপট রেসিপি এখন দেওয়া হল –

কিউই ফ্রুট স্মুদি :উপাদান :

১ কিউই (কাটা)

১ গ্লাস দুধ (২০০ মিলি)

১ চা চামচ মধু

১ কাপ ওটস

পদ্ধতি :

সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে ভালো করে ব্লেন্ড করুন এবং ঠাণ্ডা হলে পরিবেশন করুন।

২. কিউই ফিরনি :উপাদান :

২ লিটার দুধ

১০০ গ্রাম টুকদা চাল

২৫০ গ্রাম কিউই (কাটা)

১০০ মিলি কনডেন্সড মিল্ক

১০ গ্রাম সবুজ এলাচ

১৫০ গ্রাম চিনি

পদ্ধতি :

একটি নন স্টিক প্যানে দুধ, কনডেন্সড মিল্ক, চিনি ভালো করে ফুটিয়ে নিন এবং ক্রমাগত নাড়ুন যাতে উওপরে মালাই না পড়ে।

চাল এবং এলাচ ভালো করে মিশিয়ে ২০-২৫ মিনিট পর চাল সিদ্ধ হলে সেটা নামিয়ে ঠান্ডা হতে দিন। তাজা কাটা কিউই এর সঙ্গে যোগ করে ভালোভাবে মিশিয়ে দু মিনিট রেখে দিন।

মিশ্রণটি একটি ভিন্ন পাত্রে ঢেলে ফ্রিজে রাখুন।

তারপর ঠান্ডা ঠাণ্ডা উপভোগ করুন।

৩. কিউই রাইতা :উপাদান :

২০০ গ্রাম দই

কিউই (সূক্ষ্মভাবে কাটা)

স্বাদমত নুন

লাল মরিচ (এক চিমটি)

ভাজা জিরা গুঁড়ো

পদ্ধতি :

একটি পাত্রে দইয়ের সঙ্গে জল ফেটিয়ে মসৃণ পেস্ট তৈরি করুন।

দইয়ে স্বাদ অনুসারে নুন , লাল মরিচ ও ভাজা জিরা গুঁড়ো দিন।

এতে সূক্ষ্মভাবে কাটা কিউই যোগ করুন এবং ভাল করে মেশান।

ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশন করুন।

Published by:Brototi Nandy

First published:

Tags: Health Benefits, Kiwi, Recipes



Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা