সোমবার , ১৩ ডিসেম্বর ২০২১ | ২২শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ক্যারিয়ার
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. তরুণ উদ্যোক্তা
  8. ধর্ম
  9. নারী ও শিশু
  10. প্রবাস সংবাদ
  11. প্রযুক্তি
  12. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  13. বহি বিশ্ব
  14. বাংলাদেশ
  15. বিনোদন

‘যুবলীগের মাধ্যমে সমৃদ্ধ রাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখেছিলেন শেখ মণি’

প্রতিবেদক
bdnewstimes
ডিসেম্বর ১৩, ২০২১ ৯:২৯ অপরাহ্ণ


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে যুবলীগ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে একটি সমৃদ্ধ ও ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখেছিলেন শহীদ শেখ ফজলুল হক মণি।

সোমবার (১৩ ডিসেম্বর) যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা শেখ ফজলুল হক মণি’র ৮৩তম জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগ দুঃস্থদের মাঝে  শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনিএ কথা বলেন।

শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এছাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ১৩ ডিসেম্বর দেশব্যাপী যুবলীগের মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক ভ্রাম্যমাণ চলচ্চিত্র প্রদর্শনীসহ নানা কর্মসূচির উদ্বোধন করেন যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ পরশ বলেন, দেশব্যাপী শীতবস্ত্র বিতরণ, খাদ্য বিতরণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি আমরা ঘোষণা দিয়েছি। আমি বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সকল ইউনিটকে আহ্বান জানাবো যে, আপনারা সততা, শৃঙ্খলার সঙ্গে আমাদের ঘোষিত কর্মসূচি পালন করবেন।

তিনি বলেন, চলচ্চিত্র অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও শক্তিশালী মাধ্যম। আমাদের চলচ্চিত্রের একটি ঐতিহ্য আছে। আপনাদের নেতা যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মণি ১৯৭২ সালে বাংলাদেশে চলচ্চিত্রের ওপর পত্রিকা “সাপ্তাহিক সিনেমা” পত্রিকা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এটা বাংলাদেশের প্রথম পত্রিকা যা সিনেমার ওপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। তিনি ছিলেন সংস্কৃতিমনা, তিনি বাংলার সংস্কৃতি, কৃষ্টি কালচারের প্রতি অনুরাগী ছিলেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের ছাত্র ছিলেন এবং সেই কারণে তিনি বিশ্বাস করতেন বাংলার সংস্কৃতি বেঁচে থাকবে, বাংলার সংস্কৃতিতে যুবকদের জন্য যুব শক্তি হিসেবে রূপান্তরিত করার জন্য বাংলার সংস্কৃতি বিশেষ করে চলচ্চিত্র অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

তিনি বলেন, বাবার সঙ্গে আমারও ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন কিছু স্মৃতি আছে। তিনি আমাদের সিনেমা দেখতে নিয়ে যেতেন। বিভিন্ন কালচারাল বা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নিয়ে যেতেন। আমি মনে করি আমাদের সংস্কৃতি বা চলচ্চিত্রের উন্নয়ন দরকার কারণ এর ভেতরে আমাদের পরিচয় নিহিত রয়েছে।

যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, ডিসেম্বর মাস বিজয়ের মাস। ডিসেম্বর মাসকে সামনে রেখে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। তার মধ্যে ভ্রাম্যমাণ চলচ্চিত্র প্রদর্শনী অন্যতম। এছাড়াও রয়েছে শীতবস্ত্র বিতরণ, খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আলোচনা সভা।

তিনি বলেন, যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ আমাদেরকে যে কর্মসূচি দিয়েছেন তা পালনের মধ্য দিয়ে ৭১ এর পরাজিত শক্তিদের জবাব দিতে হবে। জবাব দিতে হবে জামাত-বিএনপিকে যারা ৩০ লক্ষ শহীদ ও ২ লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রম নষ্টে পাকিস্তানীদের সহায়তা করেছিল। জবাব দিতে হবে তাদের যারা দেশবিরোধী শক্তি।

তিনি আরও বলেন, আপনারা জানেন বাংলাদেশের উন্নয়নকে দাবিয়ে রাখার জন্য দেশীয় এবং বিদেশিরা নানা ধরনের ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। কিন্তু বাংলার যুব সমাজ, বঙ্গবন্ধুকন্যা রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার প্রশ্নে আপসহীন, সকল ষড়যন্ত্রের দাঁত ভাঙ্গা জবাব দিতে এগিয়ে যাবে যুবলীগ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য মঞ্জুর আলম শাহীন, ডা. খালেদ শওকত আলী, শেখ ফজলে ফাহিম, মোঃ রফিকুল ইসলাম, মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন, সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার, ইঞ্জি. মৃনাল কান্তি জোদ্দার, তাজ উদ্দিন আহমেদ, মোঃ জসিম মাতুব্বর, মোঃ আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বিশ্বাস মুতিউর রহমান বাদশা, সুব্রত পাল, মুহাম্মদ বদিউল আলম, ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নাঈম, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী মোঃ মাজহারুল ইসলাম, মোঃ সাইফুর রহমান সোহাগ, মোঃ জহির উদ্দিন খসরু, মোঃ সোহেল পারভেজ, আবু মুনির মোঃ শহিদুল হক চৌধুরী রাসেল, মশিউর রহমান চপল, প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দী, দপ্তর সম্পাদক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ, গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ জহুরুল ইসলাম মিল্টন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শামছুল আলম অনিক, সাংস্কৃতিক সম্পাদক বিপ্লব মোস্তাফিজ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মীর মোঃ মহি উদ্দিন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আব্দুল মুকিত চৌধুরী, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা খলিলুর রহমান সরদার, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এড. মুক্তা আক্তার, উপ-দপ্তর সম্পাদক মোঃ দেলোয়ার হোসেন শাহজাদা, উপ-শিক্ষা প্রশিক্ষণ ও পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক কাজী খালিদ আল মাহমুদ টুকু, উপ-তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এন আই আহমেদ সৈকত, উপ-সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক ফজলে রাব্বি স্মরণ, উপ-শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ফিরোজ আল-আমিন, উপ-কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক মোল্লা রওশন জামির রানা, উপ-মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ গোলাম কিবরিয়া শামীম, উপ-ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হরে কৃষ্ণ বৈদ্য, সহ-সম্পাদক আবির মাহমুদ, তোফাজ্জল হোসেন তোফায়েল, গোলাম ফেরদৌস ইব্রাহিম, মোঃ আবদুর রহমান জীবন, নাজমুদ হুদা ওয়ারেছী চঞ্চল, মোঃ আরিফুল ইসলাম, মোঃ আলমগীর হোসেন শাহ জয়, মোঃ বাবলুর রহমান বাবলু, আহতাসামুল হাসান ভূইয়া রুমি, মোঃ মনিরুজ্জামান পিন্টু, মোঃ মনিরুল ইসলাম আকাশ, বর্ষন ইসলাম, মোঃ মুজিবুর রহমান, ইঞ্জি. মোঃ মুক্তার হোসেন চৌধুরী কামাল, এড. মোঃ শওকত হায়াত, ইঞ্জি. মোঃ আসাদুল্লাহ তুষার, মানিক লাল ঘোষ, মোঃ মোবাশ্বার হোসেন স্বরাজ, মোঃ মুজিবুর রহমান মুজিব, মোঃ তারিখ আলম মামুন, ইঞ্জি. মোঃ শহিদুল ইসলাম সরকার, ডাঃ মোঃ আওরঙ্গজেব, ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাইন উদ্দিন রানা, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইসমাইল হোসেন, দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এইচ এম রেজাউল করিম রেজাসহ কেন্দ্রীয়, মহানগর ও বিভিন্ন ওয়ার্ড যুবলীগের নেতৃবৃন্দ।

সারাবাংলা/এসএসএ





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা