বুধবার , ১৯ জানুয়ারি ২০২২ | ৭ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. ক্যারিয়ার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. তরুণ উদ্যোক্তা
  7. ধর্ম
  8. নারী ও শিশু
  9. প্রবাস সংবাদ
  10. প্রযুক্তি
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. বহি বিশ্ব
  13. বাংলাদেশ
  14. বিনোদন
  15. মতামত

শাবিপ্রবি উপাচার্য স্বেচ্ছায় পদত্যাগ না করলে আমরণ অনশন

প্রতিবেদক
bdnewstimes
জানুয়ারি ১৯, ২০২২ ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ


শাবিপ্রবি করেসপন্ডেন্ট

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ স্বেচ্ছায় পদত্যাগ না করলে আমরণ অনশনে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন এক দফা দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) রাত ১০টার দিকে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা। এর আগে, শাবিপ্রবির দুই থেকে তিনশ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা রাত ১০টার মধ্যে প্রত্যাহারের আলটিমেটাম দিয়েছিলেন তারা।

উপাচার্যের পদত্যাগের দাবি তুলে ধরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থী শাহরিয়ার আবেদীন বলেন, বুধবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার মধ্যে শাবিপ্রবির উপাচার্য স্বেচ্ছায় পদত্যাগ না করলে ওই সময় থেকেই আমরণ অনশন শুরু হবে। একইসঙ্গে প্রক্টর ড. আলমগীর কবীর, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদকেও পদত্যাগ করতে হবে। অজ্ঞাতনামা ৩০০ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাও প্রত্যাহার করতে হবে।

আরও পড়ুন- শাবিপ্রবি— মামলা প্রত্যাহারে রাত ১০টা পর্যন্ত আল্টিমেটাম

এদিকে, সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত উপাচার্যের পদত্যাগের এক দফা দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা। পরে ২ হাজারের বেশি শিক্ষার্থীর সই সম্বলিত চিঠি রাষ্ট্রপতি বরাবর পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন আন্দোলকারীরা।

এর আগে, অসদাচরণের অভিযোগ এনে বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী ছাত্রী হলের প্রভোস্ট কমিটির পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলন শুরু করেন শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা। দাবি না মানায় গত রোববার নিজের বাসভবনে যাওয়ার সময় উপাচার্যকে ধাওয়া করেন শিক্ষার্থীরা। ওই দিন বিকেল ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. এম ওয়াজেদ মিয়া ভবনে তাকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।

পরে পুলিশ এসে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায় এবং উপাচার্যকে মুক্ত করে তার বাসভবনে নিয়ে যায়। এতে অনেকে আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে।

এদিকে পুলিশ-শিক্ষার্থী সংঘর্ষের পর জরুরি সিন্ডিকেট সভায় বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয় এবং শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়। এছাড়া ঘটনা তদন্তে ৮ সদস্যের কমিটি করা হয়। এর মধ্যেই গতকাল সোমবার বিকেলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা শাবিপ্রবি ভিসির কার্যালয়, একাডেমিক ভবন, কন্ট্রোলার অফিসসহ বিভিন্ন আবাসিক হলে তালা দেন।

আরও পড়ুন-

সারাবাংলা/টিআর





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা