রবিবার , ২৯ মে ২০২২ | ১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. ক্যারিয়ার
  4. খেলাধুলা
  5. জাতীয়
  6. তরুণ উদ্যোক্তা
  7. ধর্ম
  8. নারী ও শিশু
  9. প্রবাস সংবাদ
  10. প্রযুক্তি
  11. প্রেস বিজ্ঞপ্তি
  12. বহি বিশ্ব
  13. বাংলাদেশ
  14. বিনোদন
  15. মতামত

যেভাবে হারিয়ে যাওয়া বিমানের সন্ধান পেল নেপালের সেনাবাহিনী

প্রতিবেদক
bdnewstimes
মে ২৯, ২০২২ ৬:০৮ অপরাহ্ণ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ঢাকা: রোববার নেপালের তারা এয়ারলাইন্সের একটি বিমান উড্ডয়নের ১৫ মিনিট পর রাডার থেকে হারিয়ে যায়। পাঁচ ঘণ্টা খোঁজাখুঁজির পর লামাপাঠি হিমাল এলাকার লামচা নদীর পাশে বিমানের সন্ধান পায় সেনাবাহিনী। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, খারাপ আবহাওয়ার কারণে উদ্ধার অভিযান শুরু হয়নি। ফলে বিমানের যাত্রী ও ক্রুদের অবস্থা এখনও জানা যায়নি।

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পাইলটের ফোনের জিপিএস অবস্থান ব্যবহার করে বিমানটির অবস্থান জানা গেছে।  এতে দেখা যায়, দুর্গম লামাপাঠি হিমাল এলাকার লামচা নদীর পাশে বিমানটির অবস্থান। ঘটনাস্থলে স্থানীয় পুলিশ পৌঁছেছে। বিমানটি ওড়াচ্ছিলেন ক্যাপ্টেন প্রভাকর ঘিমিরে।

কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মহাব্যবস্থাপক প্রেম নাথ ঠাকুর বলেন, নিখোঁজ বিমানের ক্যাপ্টেন ঘিমিরের সেল ফোন বেজে উঠে এবং নেপাল টেলিকম থেকে ক্যাপ্টেনের ফোন ট্র্যাক করার পর নেপাল সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টার সম্ভাব্য দুর্ঘটনার এলাকায় অবতরণ করেছে। বিমানটি যে এলাকায় বিধ্বস্ত হয়েছে সেখানে কোনো জনবসতি নেই।

সেনাবাহিনীর মুখপাত্র নারায়ণ সিলওয়ালের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, স্থানীয়দের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, তারা বিমানটি মানপাঠি হিমালের ভূমিধসের নিচে লামচে নদীর মুখে বিধ্বস্ত অবস্থায় দেখেছেন। নেপাল সেনাবাহিনীর উদ্ধারকারী দল স্থল ও আকাশপথে ওই অঞ্চলে যাচ্ছেন।

সন্ধান পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নেপাল সেনাবাহিনীর ১০ সৈন্য ও বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের দুই কর্মচারী নিয়ে একটি হেলিকপ্টার নরশাং মঠের কাছে অবতরণ করে। এছাড়া স্থলসেনাদের আরেকটি দলও ওই স্থানে পাঠানো হয়।

রোববার সকালে পর্যটন শহর পোখারা থেকে জোমসোমের উদ্দেশ্যে তারা এয়ারলাইন্সের বিমানটি উড্ডয়নের ১৫ মিনিট পর রাডার থেকে হারিয়ে যায়। বিমানটির মডেল নাইনএন-এইটি। বিমান সংস্থার মুখপাত্র সুদর্শন বারতৌলা জানিয়েছেন, যাত্রীদের মধ্যে চারজন ভারতীয় নাগরিক, দুজন জার্মান, ১৩ জন নেপালি। এছাড়া তিন সদস্যের নেপালি ক্রু রয়েছেন।

মায়াগদির চিফ ডিস্ট্রিক্ট অফিসার চিরঞ্জীবী রানা দ্য কাঠমান্ডু পোস্টকে বলেছেন, খারাপ আবহাওয়া উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত করেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশের একটি দল মোতায়েন করা হয়েছে। স্থানীয়রা যে এলাকায় শেষবার বিমানটিকে দেখেছিল সেখানে কোনো মানববসতি নেই। আবহাওয়ার উন্নতি হলেই হেলিকপ্টারটি আকাশপথে অভিযান শুরু করবে।

সারাবাংলা/আইই





Source link

সর্বশেষ - খেলাধুলা